কেন্দ্রীয় সম্মেলন- ২০১৬

কেন্দ্রীয় সম্মেলন উপলক্ষে ছাত্র ও তরুণ সমাজের প্রতি আহ্বান

সকল প্রশংসা মহান আল্লাহ তায়ালার। দরূদ ও সালাম বর্ষিত হোক আল্লাহর রাসূলের উপর। নবী আলাইহিমুস সালাম আল্লাহর দ্বীন দুনিয়াতে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মৌলিকভাবে তিনটি বুনিয়াদী কর্মসূচী পালন করে গেছেন ।

১.তালীমে দ্বীন (দ্বীনের শিক্ষা)
২.তাবলীগে দ্বীন (দ্বীনের দাওয়াত)
৩.তাগলীবে দ্বীন (দ্বীনের বিজয়)

ইসলামের শিক্ষা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম চালু রয়েছে। তদ্রুপ তাবলীগে দ্বীনের জন্য নানামুখি কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এই দুই ক্ষেত্রের ন্যায় তাগলীবে দ্বীন তথা ইসলামকে বিজয়ী আদর্শরূপে প্রতিষ্ঠিত করার জন্যও ইসলাম অনেকগুলো কাজ দিয়েছে। তন্মধ্যে ভিত্তিমুলক কাজগুলো হল-

১.ঈমান

২.ইলম

৩.আমলে সালেহ

৪.তাকওয়া ও তাযকিয়ায়ে নফস

৫.দাওয়াত ইলাল্লাহ

৬.জামায়াত বা সংঘবদ্ধতা

৭. প্রয়োজনীয় দায়িত্বশীলতার প্রশিক্ষণ

উপরোক্ত কাজগুলো ছাড়াও তাগুতি শক্তিকে নির্মূল করে ঈমানী হুকুমত বা খেলাফত কায়েমের সংগ্রামে আত্ননিয়োগ করাই হলো তাগলীবে দ্বীনের কাজ। আর এটাই হল পূর্ণাঙ্গ ইসলামী আন্দোলন।
ইসলামী আন্দোলনের কাজে সাফল্য লাভ করতে হলে সহীহ ধারার শক্তিশালী মজবুত সংগঠনের কোন বিকল্প নেই। একটি শক্তিশালী দ্বীনি সংগঠনের জন্য নিবেদিতপ্রাণ একঝাঁক প্রশিক্ষিত মুখলিস মুত্তাকী কর্মীবাহিনী ও যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তোলা অতীব প্রয়োজন। সেই সাথে সুমহান এই সংগ্রামে বিজয় লাভ করতে হলে জাহেরী শক্তির পাশাপাশি রূহানী শক্তিতে বলিয়ান হতে হয়। সাহাবায়ে কেরাম ও পূর্বসুরীগণ এ পথে চলেই পৃথিবীর দিকে দিকে সাম্য, শান্তি ও আদর্শের বিজয় কেতন উড্ডীন করেছেন। এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য ছাত্র ও তরুণ সমাজের মাঝে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিস খ শাখা। তৃণমূল পর্যায় থেকে আদর্শ কর্মী ও নেতৃত্ব গঠনে কার্যকর প্রশিক্ষণ ও রূহানিয়্যাতের শক্তি অর্জনে আমলী তরবিয়াত, সেই সাথে ময়দানে দাওয়াতী ও সংগ্রামী তৎপরতার মাধ্যমে এই সংগঠন তার অভীষ্ট লক্ষ্যপানে এগিয়ে যেতে চায়।

দূরন্ত তারুণ্যের প্রাণবন্ত বন্ধুগণ!
আজ আমাদের সমাজ জুলুম ও অন্যায়ের অক্টোপাসে বন্দী। মানবতা ভূলুন্ঠিত। পাপ পঙ্কিলতা, জুলুম শোষনেরই যেন জয় জয়কার। বড় দুঃখের কথা হল, যে তরুণ সমাজ হতে পারত সত্যের সৈনিক তারা আজ মিথ্যার লাঠিয়াল, যারা পারত হতে মুক্তির রাহবার তারাই আজ ধ্বংসের হাতিয়ার। কায়েমী স্বার্থবাদী লুটেরারা সকল সামাজিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক হীন স্বার্থে ব্যবহার করছে তরুণ ও ছাত্রসমাজকে। মিথ্যার জৌলুস, নৈতিক অবক্ষয় আর অন্যায়ের মরীচিকার পিছনে ছুটে চলা তরুণ সমাজকে ফেরাতে হবে ধ্বংসের পথ হতে। ব্যক্তি জীবনের সামান্য চাওয়া পাওয়া ও ভবিষ্যৎ জীবনে সুনাম সুখ্যাতির ক্যারিয়ার গঠনের সাময়িক স্বার্থচিন্তার কুহেলিকা ভেদ করে তরুণ সমাজের চোখে জ্বালতে হবে চির মুক্তির প্রোজ্জ্বল মশাল। হেরার আলোকচ্ছটায় উদ্ভাসিত সে মশালই পারবে নব্য জাহেলিয়্যাতের অন্ধকারে নিমজ্জিত সমাজকে ভরে দিতে আলোয় আলোয়। দিশেহারা জাতিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসতে মুক্তির মোহনায়।

এভাবেই আস্থায় অবিচল, সংকল্পে ঐকান্তিক, পথচলায় নির্ভীক, আদর্শে আত্মবিশ্বাসী, জাহেরী ও রূহানী শক্তিতে বলিয়ান শহীদি তামান্নায় উজ্জীবিত, দ্বীন বিজয়ের প্রত্যয়ে উদ্দীপ্ত তারুণ্যকে সাথে নিয়ে সংগ্রামমুখর পথ পাড়ি দিয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি কালেমা খচিত হেলালী নিশান উড্ডীন করার। একটি ইসলামী সমাজ গঠনের।

দ্বীন বিজয়ের এ পথ চলাকে আরো গতিশীল করার লক্ষ্যে আগামি ৩০ শে ডিসেম্বর রোজ শুক্রবার রাজধানীর ঢাকা জেলা ক্রীড়া সমিতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিস খ শাখার কেন্দ্রীয় সম্মেলন।
এই সম্মেলনের সার্বিক সফলতার জন্য সকলের ঐকান্তিক দোয়া, আন্তরিক সহযোগিতা ও উপস্থিতি কামনা করছে বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিস খ শাখা

আল্লাহ তায়ালা আমাদের সকল প্রচেষ্টা তার দ্বীনের জন্য কবুল করুন। আমিন।

শেয়ার করুন
Scroll to Top